• মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৩৯ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
Logo
                               
শিরোনাম:
তালায় ধর্ষনের অভিযোগে গ্রেপ্তার -১ সাংবাদিক কামরুল হাসানের পুত্রের মাধ্যমিকে জিপিএ-৫ অর্জন সাতক্ষীরায় আনসার-ভিডিপির সদস্যদের শীতবস্ত্র বিতরণ সাতক্ষীরায় ছাত্রীদের যৌন হয়রানির মামলায় প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরী কারাগারে কলারোয়ায় আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভাসহ তিনটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে কলারোয়ায় সাংবাদিক পুত্র সোহেলের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী আজ দাখিলে আয়েনউদ্দীন মাদ্রাসায় অভাবনীয় সাফল্য কলারোয়ায় শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম মহানাম সংকীর্ত্তনের উদ্বোধন করলেন সচিব ডাঃ দিলীপ কুমার ঘোষ এসএসসি’তে ৭ম বারের মতো জেলার শ্রেষ্ঠ নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় শ্যামনগরে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

পিবিআই পুলিশ সুপারের মামলায় গ্রেপ্তার এসপি বাবুল

রিপোর্টারঃ / ১২ বার ভিজিট
আপডেটঃ বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২

ন্যাশনাল ডেস্ক: পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নাইমা সুলতানার করা মামলায় পুলিশের সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল হালিমের আদালতে শুনানি শেষে গ্রেপ্তার দেখানোর আদেশ দেন। গ্রেপ্তার দেখানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাবুল আক্তারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট গোলাম মাওলা মুরাদ। তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নাইমা সুলতানার করা মামলায় বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। আমরা বাবুল আক্তারের জামিন ও তার সঙ্গে একান্তে কথা বলার অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন করেছি। এ দুটি আবেদনের কোনো শুনানি হয়নি। এর আগে সকালে বাবুলকে আদালতে আনা হয়ছিল। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’ এর আগে গত ১৭ অক্টোবর রাতে নগরীর খুলশী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রোর ইনচার্জ পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা। মামলার অন্য আসামিরা হলেন -বাবুল আক্তারের ভাই মো. হাবিবুর রহমান লাবু ও বাবুল আক্তারের বাবা আবদুল ওয়াদুদ মিয়া। একই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ঢাকার ধানমন্ডি থানায় আরেকটি মামলা করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার। পুলিশ সুপারের মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা পরস্পরের যোগসাজশে ইলিয়াস হোসাইন কর্তৃক গত ৩ সেপ্টেম্বর ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রচার করে। এর মধ্যে তার সহযোগী আসামি বাবুল, লাবু, ওয়াদুদ মিয়া এবং তাদের অজ্ঞাতনামা সহযোগীরা পূর্বপরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রচারিত ভিডিওতে মিথ্যা, বানোয়াট ও মানহানিকর বক্তব্য রেখেছেন। তারা পরস্পর যোগসাজশে মামলার বাদীর মানহানি এবং সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় পদমর্যাদা ভূলুণ্ঠিত করাসহ তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে সবার মিথ্যা বক্তব্য সংবলিত একটি ভিডিও প্রচার করে। ভিডিওতে প্রকাশিত সব বিষয় সম্পূর্ণ মিথ্যা, উদ্দেশ্যমূলক বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। এজাহারে আরও বলা হয়েছে, সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের মামলার সঠিক তদন্তের কারণে বাদীর চরিত্র হনন, পুলিশ বিভাগে এবং জনসমক্ষে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য এই মিথ্যা মানহানিকর বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে।

add 1


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

আজকের দিন-তারিখ

  • মঙ্গলবার (রাত ৮:৩৯)
  • ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ৫ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)