ঢাকা শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

তালায় রেইন ওয়াটার ট্রাংক প্রকল্পে দুর্নীতি ও অনিয়ম

সেন্ট্রাল ডেস্ক
০৩ আগস্ট ২০২২ ২৩:২৮
আপডেট: ১২ আগস্ট ২০২২ ০৩:৩৬
তালায় রেইন ওয়াটার ট্রাংক প্রকল্পে দুর্নীতি ও অনিয়ম

বিএম বাবলুর রহমান, তালা: তালায় চলমান রেইন ওয়াটার ট্রাংক বসানো প্রকল্প কাজে শুভংকরের ফাঁকি, নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। "তুমি বাংলার ধ্রুবতারা, তুমি হৃদয়ের বাতিঘর আকাশে-বাতাসে বজ্রকন্ঠ, তোমার কন্ঠস্বর।" মুজিব বর্ষের এই শ্লোগান কে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম আশ্রয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন সেই আশ্রয়ণ প্রকল্পের ভিতরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার কৃত ঘরের আওতাধীন এলাকায় চলছে রেইন ওয়াটার ট্রাংক বসানো কাজ।আর সেখানেই দিনের বেলায় পুকুর চুরির গল্পকে হার মানিয়ে চলছে সাগর চুরির ঘটনা হরির লুট করে নিচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নকে। দেখা গেছে সারাদেশের ন্যায় তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নে গংগারামপুর গ্রামে আশ্রায়ন প্রকল্প এ চলছে রেইন ওয়াটার ট্যাংক বসানো কাজ সেখানে চলছে হরি লুট কোন কিছুর নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করে চুপচাপ ভেজাল তৈরি দ্রব্য ব্যবহার করা হচ্ছে। দেখা গেছে এই ট্রাংক বসানো জন্য (সেকশন এ-এ) এর প্ল্যান অনুযায়ী ট্রাংক প্রতি তিন বস্তা করে সিমেন্ট ব্যাবহারের এর স্থলে ব্যাবহার হচ্ছে ১ বস্তা সিমেন্ট। উন্নতমানের কুষ্টিয়ায় বালু ২০ ফুটের স্থলে দেওয়া হচ্ছে লোকাল বালু ৭ ফুট। প্রতিটি ট্রাংক এ তিন শত থেকে সাড়ে তিন শ' করে ১ নাম্বার ইট এর দেওয়ার কথা থাকলেও সেখানে ২ শত ইট এর মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে ২ নং ইট দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এছাড়া সামনের প্লাট ফম করার কথা ৪ ফুট বাই ৪ ফুট কিন্তু কাজ করা হচ্ছে ২থেকে ২.৫০ফুটে। নিচে বালি দেওয়া কথা ৬" কিন্তু সেখানে কোন বালি দিচ্ছে না। ইটের ছলিং করে ৪" ঢালাই দেওয়া কথা থাকলেও এখানে ইটের ছলিং না করে ঢালাই দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে।পানি যাওয়ার ড্রেন দেওয়া কথা ৩ফুট লম্বা এখানে সেটাও করা হচ্ছে না। চতুর্থ দিকে ১০" গাঁথনি ৬ লাইন এর স্থলে গাঁথুনি দেওয়া হচ্ছে ৫ লাইন। এলাকায় সাধারণ মানুষ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন সরকার কোনো স্থাপনা তৈরির জন্য তাদের জানা মতে সর্ব উচ্চ তৈরি সামগ্রী ব্যাবহার করা হয় কিন্তু এখানে সকল তৈরি সামগ্রী সর্বনি¤œ তৈরি সামগ্রী ব্যাবহার করা হচ্ছে দেখার কেউ নেই। ঠিকাদার সোনা মুঠোফোন মারফত জানতে চাইলে তিনি জানান আসেন সামনাসামনি কথা বলে সমাধান করি। এখন মোবাইলে আপনার জানান এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান আসেন কথা বলি আর কাজের সাইটে গিয়ে দেখে বলতে হবে আপনি কোথায় আসেন একসাথে যাই। আপনি ঠিকাদার আপনিই তো বলতে পারবেন আপনার কাজের মান কেমন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সঠিক উত্তর দিতে পারেনি। তিনি শুধুমাত্র জানান কাজের সাইটে যেতে হবে তারপর বলতে পারবো। উপজেলা জন প্রকৌশলী কর্মকর্তা তালা মফিজুর রহমান জানান, এমন একটি অভিযোগ শুনে তিনিসহ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরেজমিনে গিয়েছিলেন, এখন কাজ সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে।

সর্বশেষ সবখবর