ঢাকা রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৯ আশ্বিন ১৪২৯

পোল্ট্রি খামারিদের মুখে হাসি ফুটাচ্ছে সোনালী মুরগী

অর্থনীতি
১২ মে ২০২২ ২৩:১৪
আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৩:৪৮
পোল্ট্রি খামারিদের মুখে হাসি ফুটাচ্ছে সোনালী মুরগী

আবু সাঈদ, কৃষ্ণনগর: পোল্ট্রি ভিলেজখ্যাত কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে প্রায় চার হাজার পোল্ট্রির খামার গড়ে উঠেছে। যার দুই তৃতীয়াংশ সোনালী মুরগীর খামার। দেশে আমিষের মোট চাহিদার উল্লেখযোগ্য যোগান আসে এই সোনালী মুরগী থেকে। খেতে সুস্বাদু ও সূলভ মুল্যে হওয়ায় এই মুরগির মাংসের জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। করোনাকালীন সময়ে পোল্ট্রি খাদ্য উপকরণের মূল্য বৃদ্ধি ও উৎপাদিত মুরগির দাম কম থাকায় খামারিদের পড়তে হয় ক্রমাগত লোকশানের মুখে। ফলে বন্ধ হয়ে যায় বহু খামার। সম্প্রতি মুরগির মাংসের দাম তুলনামূলক বৃদ্ধি পাওয়ায় পোল্ট্রি খামারিদের মাঝে ফিরে এসেছে উদ্দীপনা। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, নতুন খামারের পাশাপাশি চালু হচ্ছে দীর্ঘ দিনে বন্ধ খামার। রঘুনাথপুর গ্রামের মহিউদ্দীন মোড়লের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম জানান বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা স্বত্বেও সোনালী মুরগি পালন করে সন্তোষজনক মুনাফা পাচ্ছি। শুধু জাহাঙ্গীর আলম নয়, এখন বহু খামারির মুখে সফলতার হাসি। নানামুখী প্রতিবন্ধকতা নিরসনে সরকারী পদক্ষেপ ও পৃষ্টপোষকতা থাকলে পোল্ট্রি শিল্প আবারও সমৃদ্ধ হবে।