ঢাকা রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৯ আশ্বিন ১৪২৯

কসাই খানা নামে পরিচিত বুধহাটার জনসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে জরিমানা

কান্ট্রি ডেস্ক
১৬ জুন ২০২২ ২২:৫৩
আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৩:৪৮
কসাই খানা নামে পরিচিত বুধহাটার জনসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে জরিমানা

সুব্রত দাশ, আশাশুনি: আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ডিজিটাল জনসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহিন সুলতানা বেলা ৩ টায় এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। মামলা নং ২০/২০২২। মেডিকেল প্র্যাকটিস এবং বেসরকারী ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরী ( নিয়ন্ত্রন) অধ্যাদেশ ১৯৮২ এর ৭,৮ ও ১৩ ধারা অনুযায়ী ৫০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং সতর্ক করে দেওয়া হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা (ইউ,এইচ,এফ, পিও) ডা. মিজানুল হক। মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুর রহমান, ডা. অনিক গুহ, ডা. শহিদুল্লাহ, ডা. ফরহাদ হোসেন। সতর্কে বলা হয় ফার্মেসী এবং স্টোর রুম তৈরি করতে হবে। শর্য্যানুপাতে আরো ২ জন ডাক্তার নিয়মিত উপস্থিত রাখতে হবে। ডাক্তার দিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাম করাতে হবে। সার্জন ও পৃথক এ্যান্থোলজিস্ট দিয়ে অপারেশন করাতে হবে। বর্জ্যব্যাবস্থাপনা নিশ্চিত করতে হবে। ওটি রুমের জিনিসপত্র পরিষ্কার করতে হবে। ২৪ ঘন্টা ডাক্তার রাখতে হবে। পরিবেশ অধিদপ্তর, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তর ও ইনকাম ট্যাক্সের নথি আপডেট রাখতে হবে। স্যাকমো অর্থাৎ শাহিন নামের আগে ডাক্তার লিখতে পারবেনা। এগুলো না মানলে সিলগালা করে দেওয়া হবে বলে সতর্ক করে দেওয়া হয়। জানা যায় এযাবৎ এ ক্লিনিকে ১০০ উপরে রোগি মারা গেছে ভুল সিজারে। শাহিন ও এসিসট্যান্ট ফারুক নিজে নিজে অপরেশন করেন। ক্লিনিকে নেই কোন ডিপ্লোমাধারি নার্স। ৪/৫ জন সুন্দরী মেয়ে রাখা হয়েছে ক্লিনিকে যাদের দিয়ে রাতের অন্ধকারে দেহ ব্যবসা করানো হয়। শাহিন নিজেই আল্ট্রাসনো, এক্স-রে এবং ইসিজি করেন। কিন্তু ক্লিনিক কোনভাবে সিলগালা হয় না। কোন এক অদৃশ্য শক্তির বলে প্রতিবার রেহাই পেয়ে যায় এই কসাইখানা নামে পরিচিত জনসেবা ক্লিনিক। প্রতিমাসে রোগি মরলেও দেখার কেউ থাকে না। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সব জায়গায় ম্যানেজ করেন। এলাকার সচেতন মহলের দাবী আর কত জীবন গেলে কত্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবে?