ঢাকা শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

মশা দূর করার ৫ প্রাকৃতিক উপায়

মতামত ডেস্ক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৩:০১
আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২১ ১৪:২৬
মশা দূর করার ৫ প্রাকৃতিক উপায় প্রতিকী

বর্ষার মৌসুমে বাড়ে মশার উপদ্রব। এসময় মশাবাহিত বিভিন্ন রোগের প্রকোপও বাড়ে। বর্ষা আসতে না আসতেই শুরু হয়েছে ডেঙ্গুর উপদ্রব। করোনাভাইরাস মহামারির এই দুর্যোগে ডেঙ্গুর বাড়তি ভয় যোগ হয়েছে ‌‘মরার উপর খাঁড়ার ঘা’ হিসেবে। কারণ প্রতি বছর ডেঙ্গুর কারণে প্রাণহানির ঘটনাও কম নয়। এজন্য হতে হবে সচেতন।

বর্ষাকালে মশাসহ অন্যান্য পোকা-মাকড় থেকে দূরে থাকতে হবে। সেজন্য ঘর পরিচ্ছন্ন রাখুন। কোথাও যেন বাড়তি পানি জমে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখুন। কারণ জমে থাকা পানিতে ডেঙ্গুর বিস্তার সহজ হয়। মশা দূর করার ব্যবস্থা করুন। মশার স্প্রে বা কয়েলে অনেকের সমস্যা হয়ে থাকে, এগুলো কেমিক্যালযুক্ত হওয়ায় এতে অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয় থাকে। তাই মশা দূর করার জন্য প্রাকৃতিক উপায় বেছে নেওয়া উত্তম। চলুন জেনে নেওয়া যাক মশা দূর করার সহজ পাঁচটি প্রাকৃতিক উপায়-

নিমের তেল ব্যবহার করুন

উপকারের দিক থেকে নিমের মতো কার্যকরী উপাদান কমই রয়েছে। বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণ রুখতে নিমপাতা, নিমফল ও এর গাছের ছাল ব্যবহার করার ইতিহাস বেশ পুরনো। বিভিন্ন ধরনের ভেষজ ওষুধ তৈরিতে ব্যবহার করা হয় নিম। এদিকে মশা দূর করার ক্ষেত্রেও চমৎকার কাজ করে নিমের তেল। নিমের গন্ধে মশা দূরে পালায়। সমপরিমাণ নিম তেল ও নারিকেল তেল নিয়ে সারা শরীরে মেখে নিন। এরপর নিশ্চিন্তে থাকুন। এর গন্ধে মশা আর আপনার কাছে ঘেঁষবে না। 


মশা দূর করবে তুলসি পাতা

তুলসি পাতার উপকারিতার কথা কম-বেশি সবারই জানা। তুলসি পাতার ব্যবহারে নানা ধরনের সংক্রমণ, সর্দি-কাশি দূর করা সহজ হয়। তুলসির চা আমাদের শরীরের জন্য বিশেষ উপকারী। বুকে জমে থাকা কফ দূর করতে সাহায্য করে তুলসি পাতার রস। উপকারি এই গাছও কাজে লাগে মশা দূর করার ক্ষেত্রে। আপনার শয়নকক্ষের আশেপাশে একটি তুলসি গাছ লাগান। এতে মশা আপনার কক্ষে ঢুকতে পারবে না। ঘুমও হবে প্রশান্তির।

লেবু ও ইউক্যালিপটাস তেলের মিশ্রণ

লেবু কিংবা ইউক্যালিপটাস তেল, দুটোই বেশ উপকারী উপাদান। লেবুর উপকারিতার কথা নতুন করে বলতে হবে না নিশ্চয়ই! প্রায় সবার বাড়িতেই থাকে ভিটামিন সি যুক্ত এই ফল। মশা দূর করার ক্ষেত্রেও এটি কার্যকরী। সেজন্য লেবুর পাশাপাশি প্রয়োজন হবে ইউক্যালিপটাস তেলেরও। এই দুই উপাদান নিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এবার সেই মিশ্রণ শরীরে ভালোভাবে মেখে নিন। এতে মশা কামড়াবে না, দূরে থাকবেন সংক্রমণ থেকে।

কর্পূর দূর করে মশা

কর্পূরের গন্ধ আপনার কাছে যেমনই লাগুক, মশা তাড়াতে এটি অব্যর্থ। শুধু মশা নয় বরং ছাড়পোকা, পিঁপড়া ইত্যাদি দূর করতেও সাহায্য করে কর্পূর। এটি অনেকে ত্বক বা চুলের সমস্যার সমাধানেও ব্যবহার করে থাকেন। মশা মারার যে ওষুধ তৈরি করা হয়, তাতে কিন্তু কর্পূর মেশানো থাকে। তাই মশা থেকে দূরে থাকতে ঘরে কর্পূর জ্বালাতে পারেন।

মশা দূর করতে রসুনের ব্যবহার

রসুনের ঝাঁঝালো গন্ধ আপনাকে দূরে রাখতে পারে অনেককিছু থেকেই। তার মধ্যে একটি হলো মশা। বাড়িতে মশার উপদ্রব বেড়ে গেলে কয়েক কোয়া রসুন নিন। এবার সেই রসুন পানিতে ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। রসুন দিয়ে ফোটানো পানি পুরো বাড়িতে ছিটিয়ে দিন। এর গন্ধে মশা দূরে পালাবে।