ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সাহিত্যিক শীর্ষেন্দুর স্ত্রী সোনামন আর নেই

সেন্ট্রাল ডেস্ক
২৮ আগস্ট ২০২১ ১৩:৫৪
আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১০:০৩
সাহিত্যিক শীর্ষেন্দুর স্ত্রী সোনামন আর নেই সোনামন মুখোপাধ্যায়

সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী সোনামন মুখোপাধ্যায় আর নেই। শুক্রবার রাত পৌনে ৯টায় যোধপুর পার্কের বাড়িতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার সিওপিডির সমস্যা ছিল। মৃত্যুকালে সোনামনের বয়স হয়েছিল ৮০। দৈনিক আনন্দবাজার সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

বাংলাদেশে জন্ম হলেও দেশভাগের সময়েই ভারতে চলে যায় সোনামনের পরিবার। কোচবিহারেই বড় হওয়া, লেখাপড়া। সেখানেই শীর্ষেন্দুর সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে বিয়ে করে কলকাতায় চলে যান।

জানা গেছে, বহু বছর ধরেই ফুসফুসের রোগে আক্রান্ত ছিলেন সোনামন। সিওপিডি-র রোগী হিসাবে নিয়মিত চিকিৎসা চলত তার। শুক্রবার রাত ৮টা নাগাদ হঠাৎ অসুস্থ বোধ করতে থাকেন তিনি। পালস রেট কমতে থাকায় তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তার আগেই মৃত্যু হয় সোনামনের।

সোনামনের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে শোক প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক শোক বার্তায় মমতা বলেন, বিশিষ্ট সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের সহধর্মিণী সোনামন মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি।

মুখ্যমন্ত্রীর বার্তায় আরও লেখেন, সাহিত্য-অনুরাগিণী ও সাহিত্যব্রতী সোনামন মুখোপাধ্যায় সাহিত্যের রসাস্বাদনে পারঙ্গম ছিলেন। তিনি নিজেও সাহিত্যের আসরে স্বকীয় স্বাক্ষর রেখেছেন। এক সময়ে শিক্ষকতা ও সংগীতচর্চার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। আমার সঙ্গে তার মধুর সম্পর্ক ছিল। সোনামনের প্রয়াণে শিল্প ও সংস্কৃতি জগতে এক বিশেষ ক্ষতি হল বলে মন্তব্য করেন মমতা।

সোনামনের আদি বাড়ি বাংলাদেশের নরসিংদিতে। দেশভাগের পরে পরিবারের সঙ্গে চলে আসেন উত্তরবঙ্গের কোচবিহারে। সেখানেই বিয়ে হয় শীর্ষেন্দুর সঙ্গে। সাহিত্যিকের সঙ্গে সংসারের শুরু শিলিগুড়িতে শীর্ষেন্দুর পৈতৃক বাড়িতেই।

সোনামন ও শীর্ষেন্দুর দুই সন্তান। মৃত্যুর সময়ে স্বামী, কন্যা দেবলীনা, পুত্র সম্রাট, পুত্রবধূ সীমন্তিনী ও নাতনি নীরাজনা ছিলেন তার পাশেই। শুক্রবার রাতে সোনামনের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় কেওড়াতলা শ্মশানে।

সর্বশেষ সবখবর