ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

সব খোলা, শপিংমল বন্ধ কেন?

কান্ট্রি ডেস্ক
০৭ এপ্রিল ২০২১ ১৯:৫৩
আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০২১ ১৩:৪০
সব খোলা, শপিংমল বন্ধ কেন?

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে বৃহস্পতিবার থেকে আগামী রোববারের মধ্যে দেশের সব শপিংমল ও দোকানপাট খুলতে চান ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, সবতো খোলাই রয়েছে, সেখানে শপিংমল ও দোকানপাট খুলে দিলে সমস্যা কোথায়? লকডাউনের পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন। বুধবার হেলাল উদ্দিন বলেন, আগামীকাল কিংবা রোববারের মধ্যে আমরা শপিংমল ও দোকানপাট খুলে দেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি।দোকানপাট খুলে দিয়ে কি করোনা সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সবই খোলা রয়েছে, দেখান কি খোলা নাই। আমাদেরতো স্বল্প পুঁজির ব্যবসা। গত বছর আমরা পুঁজি হারিয়েছি। যদি এ বছরও পুঁজি হারাই তাহলে সবাই পথে বসে যাবে। তখন কিন্তু সবাইকে উঠানো সম্ভব হবে না।’আপনাদের দাবি অনুযায়ী শপিংমল ও দোকানপাট খুলে দিলে কি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হবে- জানতে চাইলে হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘অবশ্যই রাখা সম্ভব হবে। আর সেটা আমরা গত বছর প্রমাণও করেছি। বরং আমরা ১’শত ভাগ মানুষকে মাস্ক পড়াতে পারবো।’ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় গত ৫ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত সারাদেশে শপিং মল, দোকান-পাট, হোটেল-রেস্তারাঁসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পাশাপাশি গণপরিবহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিল। গত রোববার মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে ১১ দফা নিষেধাজ্ঞায় সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত, ব্যাংক জরুরি প্রয়োজনে সীমিত পরিসরে খোলা রাখার সুযোগ দেয়া হয়। পরে গতকাল সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, বুধবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা, চট্টগ্রামসহ সকল সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন সেবা চালু থাকবে। তবে শহরের বাইরের কোনো পরিবহন শহরে প্রবেশ করতে পারবে না, এবং বের হতে পারবে না।