ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সিএনজি ফিলিং স্টেশন ৩ ঘণ্টা বন্ধ রাখার প্রস্তাব

সেন্ট্রাল ডেস্ক
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৬:১৩
আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:২৬
সিএনজি ফিলিং স্টেশন ৩ ঘণ্টা বন্ধ রাখার প্রস্তাব সিএনজি ফিলিং স্টেশন

প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ থাকার সরকারের সিদ্ধান্ত বুধবার থেকে কার্যকর হচ্ছে না। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ফিলিং স্টেশন মালিকদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পরেও বিষয়টি সুরাহা হয়নি। মালিকদের আপত্তির কারণে সরকারের সিদ্ধান্ত সহজেই কার্যকর হচ্ছে না বলে জানা গেছে। মালিকরা ৩ ঘণ্টা বন্ধ রাখার প্রস্তাব করেছেন।
জ্বালানি সচিব আনিছুর রহমান জানিয়েছেন, এই বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। ফিলিং স্টেশন মালিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আমরা সব বিষয়গুলো বিবেচনা করছি। এখন নিজেদের মধ্যে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নিয়ে সবাইকে জানিয়ে দেয়া হবে। আমাদের পরবর্তী সিদ্ধান্ত খুব দ্রুতই জানিয়ে দেয়া হবে। দিন পর থেকে এই আদেশ কার্যকরের কথাও বলেছেন।
বিশ্ব বাজারে এলএনজি’র দাম বাড়ার কারণে সাময়িক সময়ের জন্য বাংলাদেশ আমদানি কমিয়েছে। তাই সিএনজি স্টেশনে রেশনিং পদ্ধতির মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত সোমবার বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোকে প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। এই বিষয়ে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ থেকে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যানের কাছে চিঠি পাঠানো হয়। সিএনজি ফিলিং স্টেশন মালিকরা এই বিষয়টি জানতে পেরে পেট্টোবাংলার সঙ্গে আলোচনায় প্রস্তাব দেয়। মঙ্গলবার দুপুরে পেট্টোবাংলা সিএনজি স্টেশন মালিকদের সংগঠন সিএনজি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সিএনজি স্টেশনে গ্যাস রেশনিং করার বিষয়ে আলোচনায় বসে। সভায় স্টেশন মালিকরা ৬ ঘণ্টা পরিবর্তে ৩ ঘণ্টা বন্ধ রাখার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু পেট্টোবাংলা ফিলিং স্টেশন ওনারদের প্রস্তাব মানতে নারাজ।
সিএনজি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ফারহান নুর জানান, আমরা পেট্রোবাংলার কর্মকর্তাদের কথা শুনেছি। তারা বলেছেন, এলএনজি গ্যাস সংকট চলছে। সংকট কাটাতে প্রায় ৪৫দিন সময় লাগবে। এই অবস্থায় আগামী দুই মাসের জন্য সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রতিদিন ৩ ঘণ্টা স্টেশনগুলো বন্ধ রাখার প্রস্তাব দিয়েছি। পেট্রোবাংলার কর্মকর্তারা আমাদের বলেছেন, আমাদের প্রস্তাবের বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলাপ করে নতুন সিদ্ধান্ত জানাবেন। সিদ্ধান্ত না হওয়ায় এখনই ফিলিং স্টেশনের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হচ্ছে না।

সর্বশেষ সবখবর