ঢাকা সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯

ইনজুরিতে দিশেহারা টাইগাররা!

স্পোর্টস ডেস্ক
২১ মে ২০২২ ১১:৫৬
আপডেট: ২৭ জুন ২০২২ ০৮:০২
ইনজুরিতে দিশেহারা টাইগাররা!

ইনজুরি যেনো বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নিত্যসঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে। একের পর এক ইনজুরি ভাবাচ্ছে পুরো দলকে। বিশেষ করে বিসিবির নির্বাচক প্যানেল এই নিয়ে রয়েছেন বেশ দুশ্চিন্তায়। সামনের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী কিছু দিনের মধ্যেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদ্দশ্যে একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে উড়াল দেবে টাইগাররা। এর মধ্যে একের পর এক ইনজুরির কারণে দলের স্তম্ভগুলো দুর্বল হয়ে পড়ছে। দলের পেস এ্যাটাক এখন নড়বড়ে প্রায়। স্পিন এ্যাটাক নিয়েও রয়েছে দুশ্চিন্তা। ফলে এখন অনেকটাই দিশেহারা অবস্থায় টিম টাইটাররা। ইনজুরির কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট না খেলেই দেশে ফিরে আসেন পেসার তাসকিন আহমেদ ও প্রথম টেস্টে একাদশে না থাকা শরিফুল ইসলাম। এই ইনজুরির কারণে তারা দুইজনই ঘরের মাটিতে শ্রীলঙ্কা টেস্টেরও খেলতে পারেন নি। তাদের অবস্থা এতটাই খারাপ যে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেও তাদের পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে বিসিবি। এদিকে বাংলাদেশ দলের বর্তমান সময়ের দুইজন সেরা পেসার একসঙ্গে ইনজুরিতে পড়ায় বিষয়টি ভাবাচ্ছে বিসিবিকে। 

এদিকে, শ্রীলঙ্কা টেস্টের আগে অনুশীলন করতে গিয়ে ইনজুরির শিকার হন মিরাজ। তার হাতে চোটের কারণে তিনি শ্রীলঙ্কা সিরিজ খেলতে পারেন নি। এ সময় তার বদলি হিসেবে নেওয়া হয় নাঈম হাসানকে। নাঈম চট্টগ্রাম টেস্টে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করলেও তিনিও চোটের মুখে পড়েছেন। এর কারণে ঢাকায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট থেকে তিনি ছিটকে পড়েছেন। এভাবে একের পর এক ইনজুরি বাংলাদেশ দলকে দুর্বল করে দিচ্ছে। 

অন্যদিকে, ওয়েস্ট ইন্ডিজে পূর্ণাঙ্গ সিরিজের জন্য অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। পবিত্র হজ পালনের জন্য সেই সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন তিনি। হজ পালনের জন্য উইন্ডিজ সফর থেকে ছুটি চেয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে চিঠি দিয়েছেন মুশফিক। এ কারণেই মনে করা হচ্ছে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে সফরটা বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ নিয়েই অপেক্ষা করছে। চোটের কারণে তাসকিন আহমেদকে টেস্ট সিরিজে পাওয়া নিয়ে আছে শঙ্কা। ইনজুরিতে ছিটকে গিয়েছেন শরিফুল ইসলাম আর নাঈম হাসানও। এবার মুশফিকের নামও যোগ হলো সেই তালিকায়। 

ক্রিকেট বিশ্লেষকদের মতে, যেহেতু তাসকিন-শরিফুলকে পাওয়া যাবে না তাদের চোটের কারণে, সেহেতু মুস্তাফিজই এখন ভরসা। তাকে সব ফরম্যাটেই খেলাতে হবে বিসিবিকে। নইলে পেসার সংকটে ভুগবে বাংলাদেশ দল। এছাড়াও এখন যারা স্পিনার রয়েছেন তাদেরও বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। আর যেহেতু মুশফিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে ছুটিতে থাকবেন সেহেতু বাংলাদেশ দল একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের অভাব অনুভব করবে। সর্বোপরি বাংলাদেশ দলকে মনোবল শক্ত রাখতে হবে এবং নতুনদের তাদের প্রমাণ করতে হবে। তাহলেই বাংলাদেশ দল একটি ভালো ফলের আশা করতে পারে।

সর্বশেষ সবখবর