ঢাকা শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

শুক্রবার বদলে গেছে সবকিছু—পাকিস্তানে কী ঘটেছিল, ব্যাখ্যায় নিউজিল্যান্ডের বোর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৮:৫২
আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০২১ ২২:৫৩
শুক্রবার বদলে গেছে সবকিছু—পাকিস্তানে কী ঘটেছিল, ব্যাখ্যায় নিউজিল্যান্ডের বোর্ড পাকিস্তান ছেড়ে দুবাইয়ে পৌঁছেছে নিউজিল্যান্ড দল -ছবি: নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের টুইটার

ঠিক কোন ধরনের নিরাপত্তা-হুমকির কারণে পাকিস্তান সফর বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড, সেটা খোলাসা হয়নি এখনো। এর আগে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (এনজেডসি) প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট বলেছিলেন, যে ধরনের পরামর্শ সরকার ও নিরাপত্তা পরামর্শক দলের কাছ থেকে তাঁরা পেয়েছিলেন, এরপর সফর বাতিল করার সিদ্ধান্তকেই ‘একমাত্র দায়িত্বশীল উপায়’ বলে মনে হয়েছিল তাঁদের।
এবার হোয়াইট বলছেন, বদলে যাওয়া দৃশ্যপটে ‘কোনোভাবেই পাকিস্তানে থাকা সম্ভব ছিল না’ নিউজিল্যান্ড দলের পক্ষে।
রাওয়ালপিন্ডিতে গত শুক্রবার ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ শুরুর কিছুক্ষণ আগে পাকিস্তানের পুরো সফর বাতিলের ঘোষণা দেয় নিউজিল্যান্ড। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছিল, সিদ্ধান্তটা একতরফা নিয়েছে এনজেডসি। এমনকি দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপের পরও কোনো লাভ হয়নি।
আপাতত কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে ইসলামাবাদ থেকে ভাড়া করা বিমানে গতকাল রাতে দুবাই পৌঁছেছে কিউইরা, এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে এনজেডসি।
নিউজিল্যান্ড দলের নিরাপদে পাকিস্তান ছাড়ার ব্যাপারে সহায়তা করার জন্য পিসিবির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন হোয়াইট, ‘আমরা বুঝতে পারছি পিসিবির চরম দুঃসময় যাচ্ছে। আমরা তাদের প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান ও তাঁর সহযোগীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই তাঁদের পেশাদারি ও যত্নের জন্য।’
স্বাভাবিকভাবেই সফর শুরুর আগে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই পাকিস্তানে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। পিসিবির দাবি, নিউজিল্যান্ড যে নিরাপত্তা-হুমকির ওপর ভিত্তি করে সফর স্থগিত করেছে, সে ব্যাপারে আগে থেকে কোনো কিছু জানানো হয়নি তাদের। সবকিছু ঠিকঠাক আছে জেনে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার পর কিউইদের এভাবে সফর বাতিলের যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা।
তবে হোয়াইট জানিয়েছেন, এ সফর চালিয়ে যাওয়ার সব রকমের ইচ্ছা থাকলেও শুক্রবার নিউজিল্যান্ড সরকারের কাছ থেকে পাওয়া ‘সুনির্দিষ্ট ও নির্ভরযোগ্য’ হুমকির তথ্যের ভিত্তিতেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে তাঁদের। পাকিস্তানে থাকা এনজেডসির নিরাপত্তা পরামর্শক দল এবং অন্যান্য নিরপেক্ষ মাধ্যম থেকে সে হুমকির ব্যাপারে নিশ্চিত করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে, আমরা যে পরামর্শ পেয়েছি, এরপর কোনোভাবেই সে দেশে থাকা সম্ভব ছিল না আমাদের। শুক্রবারই বদলে গেছে সবকিছু। পরামর্শ বদলে গেছে, হুমকির ধরন বদলে গেছে। ফলে, আমাদের এমন পদক্ষেপ নিতে হয়েছে,’ - বলেছেন হোয়াইট।
এ হুমকির ব্যাপারে সাধারণ একটা ধারণা পিসিবিকে দেওয়া হলেও খোলাসা করে কিছু বলেনি এনজেডসি। হোয়াইট বলেছেন, হুমকির ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ্যে বা গোপনেও কারও সঙ্গে আলোচনা করবেন না তাঁরা।
হোয়াইট বলছেন, ‘এটুকু বলতে পারি, দলের ওপর সুনির্দিষ্ট ও নির্ভরযোগ্য একটা হুমকির ব্যাপারে অবহিত করা হয়েছিল আমাদের। এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নিউজিল্যান্ড সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে একাধিকবার কথা হয়েছে আমাদের। পিসিবিকে আমাদের অবস্থান জানানোর পরই দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে ফোনে কথা হয়েছে বলেও জানতে পেরেছি আমরা।’
পাকিস্তান সফরে থাকা কিউই স্কোয়াডের ৩৪ জন সদস্যই দুবাই পৌঁছে ২৪ ঘণ্টার আইসোলেশনে আছেন। এ স্কোয়াডের মধ্যে ২৪ জন আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নিউজিল্যান্ডের বিমান ও কোয়ারেন্টিন সুবিধা পাওয়া সাপেক্ষে দেশে ফিরবেন। তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াডে থাকা সদস্যরা সেখান থেকেই দলের বাকিদের সঙ্গে যোগ দেবেন।